জ্বালানি তেলের দাম আরও বাড়বে

শনিবার, ২৮ এপ্রিল ২০১৮ ১৩:৪৬ ঘণ্টা

এ বছর বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলের দাম ২৩ শতাংশ পর্যন্ত বাড়তে বলে আশঙ্কার কথা জানিয়েছে বিশ্বব্যাংক। চীন ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে বাণিজ্য উত্তেজনার মুখে চলতি বছর ধাতব পণ্যের দাম ৯ শতাংশ বাড়তে পারে। একই কারণে কৃষিপণ্যের দাম ২ শতাংশ বাড়বে বলে মনে করে সংস্থাটি।

একদিকে লাতিনের সর্ববৃহৎ তেল উৎপাদনকারী দেশ ভেনেজুয়েলায় কমছে তেলের উৎপাদন, বিপরীতে প্রতিদিনই বাড়ঠে চাহিদা। তার উপর ভূ-রাজনৈতিক অস্থিরতা। তারচেয়েও বড় খবর হলো- ইরানের উপর যুক্তরাষ্ট্রের নতুন করে নিষেধাজ্ঞা আরোপে ব্যাপারে ফরাসি প্রেসিডেন্টের বক্তব্য বিশ্ববাজারকে আরও অস্থির করে তুলেছে। ফলে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে জ্বালানি তেলের দাম। 

বিশ্বব্যাংকের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা এএফপির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চলতি ও আগামী বছরের জন্য জ্বালানি তেলের গড় দাম ব্যারেলপ্রতি ৫৩ ডলার নির্ধারণ করা হয়েছিল। এ পূর্বাভাস বাড়িয়ে ব্যারেলপ্রতি ৬৫ ডলার করেছে বিশ্বব্যাংক। তেলের দাম বৃদ্ধির কারণ হিসেবে ভূ-রাজনৈতিক নানা পরিসংখ্যান তুলে ধরেছে সংস্থাটি।

অতিরিক্ত শুল্কারোপ, জ্বালানি তেলের উত্তোলন হ্রাস, ইরানের ওপর আবার মার্কিন নিষেধাজ্ঞাসহ একাধিক বিষয়ে সিদ্ধান্ত প্রক্রিয়াধীন। এসব নিয়ে অনিশ্চয়তায় স্বল্প মেয়াদে ঝুঁকি রয়েছে।

বিশ্ব প্রবৃদ্ধি ঘুরে দাঁড়াচ্ছে। গত বছর প্রবৃদ্ধি বেড়ে হয়েছে তিন দশমিক এক শতাংশ। চলতি বছর প্রবৃদ্ধি আরও বাড়বে বলে মনে করা হচ্ছে। এর কারণেও আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানি তেলের দাম বাড়ছে। চলতি বছরের প্রথম প্রান্তিকে তেলের দাম বেড়েছে প্রায় ১০ শতাংশ।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইরানের সঙ্গে ছয় বিশ্বশক্তির চুক্তি থেকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বের হতে চাচ্ছেন। এতে নতুন করে ইরানের ওপর নিষেধাজ্ঞা আসতে পারে। এছাড়া ইয়েমেন ইস্যু নিয়ে সৌদি আরব ও ইরানের মধ্যে দ্বন্দ্বে ভূ-রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতা বাড়ছে। তেলের দর বৃদ্ধির এটিও একটি কারণ। চলতি মাসে গত সাড়ে তিন বছরের মধ্যে জ্বালানি তেলের দাম সর্বোচ্চে অবস্থানে পৌঁছেছে।

বিশ্বব্যাংকের সিনিয়র অর্থনীতিবিদ জন বাফেস বলেন, ভূ-রাজনৈতিক উত্তেজনা ছাড়াও প্রধান উৎপাদনকারী দেশগুলো অপরিশোধিত তেলের উত্তোলন হ্রাস করায় এবং চাহিদা বেড়ে যাওযায় ২০১৬ সালের শুরুর দিকের তুলনায় আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানি তেলের দাম দ্বিগুণে পৌঁছেছে।

এদিকে ইরানের বিরুদ্ধে আরোপ করা অবরোধের শর্ত চীনা প্রযুক্তি কোম্পানি হুয়াওয়ে ভঙ্গ করেছে কি না, তা খতিয়ে দেখছে যুক্তরাষ্ট্র। গতকাল বৃহস্পতিবার (২৭ এপ্রিল) ব্রেন্ট তেলের দাম বেড়ে প্রতি ব্যারেল ৭৪ দশমিক ২৭ ডলারে দাঁড়ায়, যা সর্বশেষ দামের চেয়ে ২৭ সেন্ট বা দশমিক ৪ শতাংশ বেশি। এছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের ওয়েস্ট টেক্সাস ইন্টারমিডিয়েটের (ডব্লিউটিআই) ভবিষ্যত সরবরাহ চুক্তিতে দাম ১৪ সেন্ট বেড়ে প্রতি ব্যারেল ৬৮ দশমিক ১৯ ডলারে দাঁড়ায়, যা আগের তুলনায় দশমিক দুই শতাংশ বেশি।

আগামী মে মাসের মধ্যেই ইরানের উপর যুক্তরাষ্ট্র নতুন করে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করতে পারে। আর তাই বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলের দাম বাড়ছে বলে মনে করেন ব্যবসায়ীরা।

We use cookies to improve our website. By continuing to use this website, you are giving consent to cookies being used. More details…