কোন রসায়নে বেসিস নির্বাচন?

বুধবার, ৩১ মে ২০১৭ ১৮:২০ ঘণ্টা

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের ডিটিও শাখার নির্দেশনায় স্থগিত বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসের (বেসিস) নির্বাচনের মনোনয়ন আহ্বান করেছে বেসিস নির্বাচন কমিশন। বাণিজ্য সংগঠন হিসেবে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের ডিটিও শাখা থেকে প্রদত্ত নির্দেশনা অনুয়ায়ী কমিশন রবিবার (২৮ মে) থেকে মনোনয়ন ফরম বিক্রি শুরু করেছে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশন চেয়ারম্যান এসএম কামাল। তবে অবসর গ্রহণের জ্যেষ্ঠতার বিধি লঙ্ঘন করে এ মনোনয়ন আহ্বান করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন বেসিস সভাপতি মোস্তাফা জব্বার।

ব্রেকিংনিউজকে মোস্তাফা জব্বার বলেন, ‌‘নির্বাচন কমিশন সংঘবিধির ১২.৫, ১৪.৪ ১৪.৫ তিন ধারার লঙ্ঘন করেছে। সংবিধানের ২১ ধারা বিলুপ্ত করা হলেও ১৪.৪ বিলুপ্ত বা বাতিল না করেই এটা করা হচ্ছে। বেসিস নির্বাচন বিধিতে তিন বছরের পরে কেউ নির্বাচনে অংশ নিতে পরবেন না বলা হলেও তা মানা হয়নি। এখনও তিনজন পরিচালক ৫ বছর ধরে বেসিস কার্যনির্বাহী কমিটিতে বহাল আছেন।’

তিনি আরও বলেন, ‌‘২৫ তারিখে ডিটিও থেকে যে চিঠি দেয়া হয়েছে সেটি আমি নির্বাচন সচিবালয়কে পৌঁছে দিয়েছি। কিন্তু তারা সে বিষয়টি আমলে না নিয়েই এই মনোনয়ন আহ্বান করেছে। আমি বিষয়টি ডিটিও-কে অবহতি করবো।’ 

অপরদিকে ব্রেকিংনিউজের সঙ্গে মুঠোফোন আলাপে বেসিস নির্বাচন কমিশন চেয়ারম্যান এসএম কামাল বলেন, ‘গত মাসে ডিটিও আমাদেরকে যে নির্দেশনা দিয়েছে সে অনুযায়ী আমরা লটারি করে বেসিস কার্যনির্বাহী পরিষদের তিন সদস্যপদ শূন্য করা হয়েছে। এই শূন্যপদ পূরণে বেসিস সদস্যরা আগামী ৮ জুন পর্যন্ত মনোনয়ন সংগ্রহ করতে পারবেন। অর্থাৎ পূর্ব নির্ধারিত সময় ৮ জুলাই হচ্ছে বেসিস নির্বাচন।’

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি আরও বলেন, ‘ডিটিও থেকে প্রয়োজন সাপেক্ষে সংঘবিধি সংশোধনের কথা বলেছে। নির্বাচন স্থগিত করতে হবে এমন কোনো নির্দেশনা দেয়নি। এজন্য আমরা পূর্ব ঘোষিত তারিখেই নির্বাচন আয়োজন করছি। নির্বাচনের পর লটারিতে বাদ পড়া বেসিস কার্যনির্বাহী কমিটির সভাপতি মোস্তাফা জব্বার, সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট রাসেল টি আহমেদ এবং ভাইস প্রেসিডেন্ট ফারহানা এ রহমান দায়িত্ব হস্তান্তর করবেন বলে আশা করছি।’

প্রসঙ্গত, সংগঠনটির গঠনতন্ত্র অনুয়ায়ী ৩ বছরের সেশন সময়ে প্রতি টার্মে (প্রতি বছর) কার্যনির্বাহী কমিটি হতে ৩ জন পদত্যাগ করবেন। পদত্যাগ করে শূন্য হওয়া ৩ পদে হবে নির্বাচন। নতুন নির্বাচিত এবং পুরনো মিলে ৯ পরিচালক নতুন করে কার্যনির্বাহী কমিটির পদের দায়িত্ব নেয়ার নির্বাচন করবেন।

সে লক্ষ্যে বেসিসের গঠনতন্ত্র (সংঘবিধি) সংশোধনের পর এবার প্রথমবারের মতো নির্বাচন আয়োজনে নির্বাহী পরিষদ থেকে কোন তিন সদস্য পদত্যাগ করবেন এ নিয়ে তৈরি হয় জটিলতা। প্রাথমিকভাবে কার্যনির্বাহী সদস্যের মধ্যে পদত্যাগ বিষয়ে সমঝোতা না হওয়ায় জ্যেষ্ঠতার ভিত্তিতে সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট রাসেল টি আহমেদ, ভাইস প্রেসিডেন্ট এম রাশিদুল হাসান ও পরিচালক উত্তম কুমার পালকে পদত্যাগে চিঠি দেয় নির্বাচন বোর্ড। কিন্তু সংশ্লিষ্ট তিন সদস্য পদত্যাগ না করে নির্বাচন পরিচালনা সংক্রান্ত আপিল বোর্ডে পদত্যাগ না করার যুক্তি উপস্থাপন করে চিঠি দেয়। আপিল বিভাগ ওই চিঠি আমলে নিয়ে গঠনতন্ত্র অনুযায়ী পদত্যাগের জন্য লটারির আয়োজন করে। গত মঙ্গলবার আয়োজিত পদত্যাগের জন্য আয়োজিত লটারিতে মোস্তাফা জব্বার, রাসেল টি আহমেদ ও ফারহানা এ রহমানের নাম ওঠে। তবে এ লটারি প্রক্রিয়াকে অবৈধ আখ্যা দিয়ে ডিটিও শাখায় চিঠি দেন বেসিস সভাপতি। এ চিঠির জবাবে বেসিসের সংঘবিধি সংশোধনে নির্দেশনা দেয় ডিটিও শাখা।

We use cookies to improve our website. By continuing to use this website, you are giving consent to cookies being used. More details…