এক দশক পর নিজ ভূমে পরবাস ভাংছেন বি’চৌধুরী

মঙ্গলবার, ২০ জুন ২০১৭ ১৭:৩৮ ঘণ্টা

মোঃ আরিফ হোসেন: প্রায় এক দশক পর নিজ ভূমে পরবাস ভাংছেন সাবেক রাষ্ট্রপতি ও বিকল্পধারার প্রেসিডেন্ট বি’চৌধুরী। আজ মঙ্গলবার বিকল্প যুবধারার ইফতার মাহফিলে অংশ গ্রহনের মধ্য দিয়ে ২০০৮ সালের পর শ্রীনগরে কোন রাজনৈতিক অনুষ্ঠানে এই প্রথম তিনি উপস্থিত হচ্ছেন। তার সাথে ছেলে মাহি বি’চৌধুরীও রয়েছেন। এর আগে তিনিও বাবার মতোই শ্রীনগরের রাজনৈতিক মাঠ থেকে দূরে থেকেছেন। এক দশকের এই সময়ে তারা অবশ্য হাতে গোনা দুএকটি সামাজিক অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছেন। রাজনৈতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে বি’চৌধুরীর ও মাহি বি’চৌধুরীর এই ফেরাকে অনেকে মনে করছেন আবার তারা শ্রীনগরের রাজনীতিতে সরব হচ্ছেন।

বি’চৌধুরী বিএনপির টিকেটে মুন্সীগঞ্জ-১ আসন থেকে ৫ বার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়ে সর্বশেষ ২০০১ সালে তিনি রাষ্ট্রপ্রতি পদে অধিষ্টিত হন। তিনি রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হলে শূন্য আসনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন তার ছেলে মাহি বি’চৌধুরী। পরে ২০০৮ সালে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিকল্পধারার ব্যানারে মুন্সীগঞ্জ-১ আসন থেকে বি’চৌধুরী নির্বাচন করে আওয়ামী লীগের সুকুমার রঞ্জন ঘোষের সাথে প্রায় এক লাখ ভোটের ব্যবধানে পরাজিত হন। ওই নির্বাচনে তিনি বিএনপির শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন এর কাছ থেকে প্রায় সত্তর হাজার ভোট কম পেয়ে তৃতীয় হন। দল পরিবর্তনের সাথে সাথে এমন সুচনীয় পরাজয় মেনে নিতে পারেননি ৫ বারের এই সাংসদ। একারণে ওই নির্বাচনের পরপরই তিনি ও তার ছেলে রাগে ক্ষোভে এলাকা ছেড়ে দেন। এর পর আর কোন রাজনৈতিক অনুষ্ঠানে তাদের দেখা যায়নি। দুএকটি সামাজিক অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছেন নিভৃতে।

আজ মঙ্গলবার বিকল্প যুবধারার উদ্যোগে আয়োজিত ইফতার মাহফিলে অংশ গ্রহনের মধ্যে দিয়ে নিজ এলাকা শ্রীনগর উপজেলা মজিদপুর দয়হাটা গ্রামে রাজনৈতিকভাবে আগমন ঘটবে তাদের।

এ উপলক্ষ্যে তার নির্বাচনী এলাকা শ্রীনগর ও সিরাজদ্দিখান উপজেলার প্রশাসনিক লোকজন ও বিভিন্ন রাজনৈতিক দলসহ নিজ দলের নেতাকর্মীদের মাধ্যে ইফতার মাহফিলের দাওয়াত কার্ড বিলি করে তার আগমন বার্তা পৌছে দেয়া হয়েছে। এই ইফতার মাহফিলে অংশ গ্রহন করবেন কেন্দ্রীয় বিকল্পধারার সাধারন সম্পাদক ও সাবেক মন্ত্রী মেজর অবঃ আঃ মান্নান সহ দলটির কেন্দ্রীয় কমিটির অনেক নেতা ।

২০০২ সালে শ্রীনগরে আওয়ামী লীগের এক জনসভায় সাবেক বিরোধী দলীয় নেত্রী ও বর্তমান প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার আগমন উপলক্ষ্যে তাকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানিয়ে ঢাকা মাওয়া মহাসড়কে তিনটি তোরণ নির্মান করেন তৎকালীন বিএনপির সরকার দলীয় সংসদ সদস্য মাহী বিচৌধুরী। তার এ কাজে বিএনপির রাজনৈতিক অঙ্গনে ব্যাপক সমালোচনার ঝড় উঠে। এক পর্যায়ে বিএনপির হাইকমান্ড থেকে শুরু করে জাতীয় সংসদে বিএনপির এমপিরা তার এ কাজের সমালোচনা করে তীব্র প্রতিবাদ জানায়।এঘটনার কিছুদিন পর বিএনপির চাপের মুখে বি.চৌধুরী রাষ্ট্রপতির পদ থেকে পদত্যাগ করেন।

পরবর্তীতে মাহী বি.চৌধুরীও পিতার পথ অনুসরণ করে বিএনপি থেকে পদত্যাগ করেন। এরপর বি.চৌধুরী,সাবেক মন্ত্রী মেজর (অবঃ) আঃ মান্নান ও মাহী বি.চৌধুরী মিলে বিকল্পধারা বাংলাদেশ নামের একটি রাজনৈতিক দল গঠন করেন। ২০০৮ সালে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মুন্সীগঞ্জ-১ আসন থেকে বি.চৌধুরী বিকল্পধারার প্রার্থী হয়ে শোচনিয়ভাবে পরাজিত হলে তিনি তার ছেলে মাহি বি’চৌধুরী এলাকার রাজনীতি থেকে সরে দাড়ান। দীর্ঘদিন শ্রীনগরের রাজনীতিতে রাজত্ব করা এ দুই হেভিওয়েটের হঠাৎ প্রস্থান বিপাকে ফেলে তাদের অনুসারীদের। অনেকদিন পর তাদের আগমন ওই সব অনুসারীদের নতুন করে ফিরিয়ে আনতে পারে কিনা তা-ই এখন দেখার বিষয় বলে মনে করছেন স্থানীয় রাজনৈতিক বোদ্ধারা।

We use cookies to improve our website. By continuing to use this website, you are giving consent to cookies being used. More details…