সামাজিক সহযোগিতা মস্তিষ্কের আকার বাড়ায়

বৃহস্পতিবার, ০১ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ ২০:১৩ ঘণ্টা

সামাজিক গ্রুপ বা গোত্রে অন্য মানুষদের বিচার করা এবং তাদের সহযোগিতা করা যাবে কি যাবে না এই ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়ার ব্যাপারটি গত দুই মিলিয়ন অর্থাৎ বিশ লাখ বছর ধরে মানুষের ব্রেইনের আকার বৃদ্ধিতে ভূমিকা রেখেছে।
 
একটি গবেষণায় এরকমই দেখা গেছে। দেখা গেছে যারা অন্যদেরকে বা অন্তত নিজেদের মত কাউকে সাহায্য করেছে বিবর্তনগতভাবে তারা লাভবান হয়েছে।
 
এই গবেষণা দলের প্রধান, ব্রিটেনের কার্ডিফ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর রজার হুইটেকার বলেছেন, আমরা দেখেছি সহায়তার বিবর্তন সমাজের উন্নতির মূল চাবিকাঠি।
 
এটা বিভিন্ন সমাজের মধ্যে তুলনা করারও একটি মাপকাঠি— আর এই ব্যাপারটিই মস্তিষ্কের আকার বড় করেছে, আর আমরা অন্যদের সাহায্য করব কিনা সেই ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিয়েছে।
 
সোশ্যাল ব্রেইন হাইপোথিসিস অনুযায়ী, বড় ও জটিল ধরনের সামজিক গ্রুপে জড়িত  থাকার ফলে মানুষের মস্তিষ্ক আকারে বড় হয়।
 
অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটির প্রফেসর রবিন ডানবার বলেছেন, আমাদের নতুন গবেষণায় এই হাইপোথিসিসটি জোরালো হয়েছে, এবং ব্রেইনের বিবর্তনের ক্ষেত্রে সহযোগিতা করার ভূমিকা সম্পর্কে নতুন ধারণা দিয়েছে। দেখা গেছে অন্যদের সাহায্য করার ব্যাপারটি মানব মস্তিষ্ক বড় করার ক্ষেত্রে অবদান রেখেছে।
 
গবেষণাটি নিকট ভবিষ্যতে ইন্জিনিয়ারিং এর ক্ষেত্রেও অবদান রাখবে বলে মনে করা হচ্ছে।
 
বুদ্ধিমান এবং বুদ্ধিবৃত্তিকভাবে স্বাধীন যন্ত্রগুলি একে অপরের সাথে ইন্টার‍্যাকশনের সময় একটি আরেকটির প্রতি কতটা সহানুভূতিশীল হবে বা হওয়া উচিৎ সেই ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিতেও এই গবেষণাটি কাজে লাগবে। সায়েন্টিফিক রিপোর্টস জার্নালে এই তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে।
 
ডিসিশন মেকিং বা সিদ্ধান্ত তৈরি প্রক্রিয়ার জটিলতা বোঝার জন্য গবেষকরা কম্পিউটার মডেল ব্যবহার করে কয়েক লাখ সিমুলেশন বা ‘ডোনেশন গেইম’ চালিয়েছেন।
 
কেন মানুষের মধ্যে নির্দিষ্ট ধরনের আচরণ সময়ের সাথে সাথে জোরালো হতে শুরু করে তা বুঝতে পারা ছিল এই সিমুলেশনগুলি চালানোর উদ্দেশ্য ।

We use cookies to improve our website. By continuing to use this website, you are giving consent to cookies being used. More details…