Logo
ব্রেকিং নিউজ :
Wellcome to our website...

ইতিহাসের অংশ হচ্ছে একাদশ জাতীয় সংসদ

রির্পোটারের নাম 13 বার
আপডেট সময় : Saturday, April 18, 2020

1

স্বাধীন বাংলাদেশের জাতীয় সংসদ এবার সংসদের ইতিহাসে এক বিরল ঘটনার জন্ম দিতে যাচ্ছে। নজির হয়ে থাকবে সংসদের রেকর্ড বইয়ে। নিয়ম রক্ষার এই অধিবেশনটি হবে সংক্ষিপ্ত। সর্বসাকূল্যে চলবে এক-দেড়ঘণ্টা। অধিবেশন ঘিরে দর্শনার্থীদের হুড়োহুড়ি থাকবে না। দেখা যাবে না গণমাধ্যম কর্মীদের তৎপরতা। অধিবেশন ঘিরে যে চাঞ্চল্য থাকে তাও দেখা যাবে না।

কেন এই চিত্র তার নেপথ্যের মূল কারণ বিশ্বব্যাপী সংক্রামক রোগ করোনা, যা আন্যান্য দেশের মতো এখানেও ক্রমান্বয়ে বিস্তার ঘটছে। তাই সরকারকে নিয়ম রক্ষার্থে কোরাম পূরণ হয় এমন মন্ত্রী-এমপিদের উপস্থিতিতে শেষ করতে হবে এ অধিবেশন বলে সংসদ সচিবালয় সূত্র নিশ্চিত করেছে।

তাদের তথ্য মতে, স্বল্পতম সময়ের জন্য বসবে এই সংসদের সপ্তম অধিবেশন। সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতার কারণে ডাকা এই অধিবেশন আজ শনিবার বিকাল ৫টায় শুরু হয়ে এক থেকে দেড় ঘণ্টা চলতে পারে। শুধু সাংবাদিক ও দর্শনার্থী না কর্মকর্তা-কর্মচারীদের উপস্থিতি সীমিত করা হয়েছে। সংসদ সদস্যরাও করোনাভাইরাসের সতর্কতা নির্দেশনা মেনেই সংসদ অধিবেশনে অংশ নেবেন।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী জানান, সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতা থাকায় সব জেনে বুঝেই আহ্বান করা হয়েছে এই অধিবেশন। খুবই স্বল্প সময়ের জন্য বসবে। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার দেওয়া নির্দেশনা মেনে চলা হবে এখানে। দুর্যোগ পরিস্থিতির কারণে সংসদ সদস্যরা নিজ নিজ এলাকায় ত্রাণসহ অন্যান্য কার্যক্রম নিয়ে ব্যস্ত থাকায় অধিবেশনে উপস্থিতি কম থাকবে, যোগ করেন স্পিকার।

এদিকে জাতীয় সংসদের পক্ষ থেকে অধিবেশনে সশরীরে উপস্থিত না হয়ে সংসদ টেলিভিশন থেকে সংবাদ সংগ্রহের জন্য গণমাধ্যমকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে। সংসদ সচিবালয়ের গণসংযোগ এক বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

সেখানে বলা হয়েছে, মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে সবার জীবনের নিরাপত্তার বিষয়টি মাথায় রেখে সংসদ অধিবেশন অত্যন্ত সংক্ষিপ্ত করা হবে। এ প্রেক্ষাপটে সাংবাদিকদের সরাসরি সংসদে না এসে নিজ নিজ স্থানে অবস্থান করে সংসদ টেলিভিশন থেকে সরাসরি সম্প্রচারিত অধিবেশন কাভার করার জন্য বিনীত অনুরোধ করা হচ্ছে।

সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতার কারণে করোনাভাইরাসের এই দুর্যোগেও সংসদের সপ্তম অধিবেশন আহ্বান করেছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। এক অধিবেশন শেষ হওয়ার পর ৬০ কার্যদিবসের মধ্যে আবার বসার বাধ্যবাধকতা রয়েছে। সর্বশেষ ষষ্ঠ অধিবেশন শেষ হয়েছিল গত ১৮ ফেব্রুয়ারি। সেই হিসেবে ১৮ এপ্রিলের মধ্যে সংসদের অধিবেশন আহ্বানের বিধান রয়েছে। আর সংবিধান রক্ষায় ১৮ এপ্রিল শনিবার বিকাল ৫টায় স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদ অধিবেশন শুরু হবে। যা মাগরিবের নামাজের বিরতির আগেই শেষ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

সংসদ সচিবালয় সূত্র জানায়, এই অধিবেশনে প্রশ্নোত্তর পর্ব থাকছে না। কোনো বিল উত্থাপন ও পাসের সম্ভাবনা নেই। অধিবেশনের শুরুতে স্পিকার ও ডেপুটি স্পিকারের অনুপস্থিতিতে সংসদ অধিবেশন পরিচালনার জন্য সভাপতিমণ্ডলী মনোনয়নের পর চলতি সংসদের সদস্য ও সাবেক ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফসহ অন্যদের মৃত্যুতে শোক প্রস্তাব উত্থাপন করা হবে। শোক প্রস্তাব নিয়ে আলোচনা শেষে অধিবেশন মূলতবি করা হবে।

এরপর জনগুরুত্বপূর্ণ নোটিস নিয়ে আলোচনা শেষে অধিবেশন সমাপ্ত হবে। এর আগে দিনের কার্যসূচিতে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী মো. ফরহাদ হোসেন কর্তৃক সরকারি কর্ম কমিশনের বার্ষিক প্রতিবেদন উত্থাপনের কর্মসূচি রয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
Theme Created By ThemesDealer.Com
0Shares
0Shares