Logo
ব্রেকিং নিউজ :
Wellcome to our website...

করোনার নতুন স্ট্রেন, চিন্তা বাড়ছে ভারতে

অনলাইন ডেস্ক 17 বার
আপডেট সময় : Wednesday, August 19, 2020
করোনার নতুন স্ট্রেন, চিন্তা বাড়ছে ভারতে

5

ভারতে কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা সাড়ে ২৭ লাখ ছাড়িয়েছে। পাশাপাশি মৃত্যু হয়েছে ৫২ হাজার ৮৮৯ জন মানুষের। বুধবার কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক বুলেটিন অনুসারে, শুধু ২৪ ঘন্টায় সংক্রমিত হয়েছেন ৬৪ হাজার ৫৩১ জন। করোনায় বলি হয়েছেন আরও ১ হাজার ৯২ জন। নতুন করে দৈনিক সংক্রমণের উদ্বেগ বাড়ছে ভারতে। সক্রিয় করোনা রোগী রয়েছেন ৬ লাখ ৭৬ হাজার ৫১৪ জন। সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গিয়েছেন ২০ লাখ ৩৭ হাজার ৮৭০ জন।

পরিসংখ্যান অনুযায়ী সুস্থতার হার বেড়ে হয়েছে ৭৩.৬৪ শতাংশ।মৃত্যু হার ১.৯১ শতাংশ। সর্বোচ্চ স্থানে থাকা মহারাষ্ট্রে আক্রান্ত ৬ লাখ ১৫ হাজার ছাড়িয়ে গিয়েছে। প্রাণ হারিয়েছেন ২০ হাজার ৬০০ জন। অন্যান্য রাজ্যগুলির মধ্যে তামিলনাড়ুতে ৩ লাখ ৪৯ হাজার, অন্ধ্রপ্রদেশে ৩ লাখ ৩৩ হাজার, কর্ণাটকে ২ লাখ ৪০ হাজার এবং উত্তরপ্রদেশে ১ লাখ ৬২ হাজার জনের শরীরে কোভিডের উপসর্গ পাওয়া গিয়েছে। সম্প্রতি সংক্রমিতের সংখ্যায় দিল্লিকে ছাপিয়ে পঞ্চম স্থানে উঠে এসেছে উত্তরপ্রদেশ। ইতিমধ্যে, দেশে ৩ কোটি ১৭ লাখের বেশি মানুষের সোয়াব পরীক্ষা করা হয়েছে। এদিকে, সেরাম ইনস্টিটিউট অক্সফোর্ডের কোভিড ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল শুরু করেছে ভারত। অন্যদিকে, গোটা বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২ কোটি ২৩ লাখ মানুষ।মৃত্যু হয়েছে ৭ লাখ ৮৪ হাজার।

ভারতের ৩০ রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল মিলিয়ে অসম ও অরুণাচল প্রদেশেই করোনায় মৃত্যুহার সবথেকে কম, এমনটাই জানিয়েছে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রক।কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, অসমে করোনায় মৃত্যুহার মাত্র ০.২৫ শতাংশ। অরুণাচলপ্রদেশে মৃত্যুহার আরও ঈর্ষণীয়, মোটে ০.১৯ শতাংশ। কোভিডে জাতীয় মৃত্যুহারের থেকে কম। মঙ্গলবারের রিপোর্ট অনুযায়ী, ভারতে কোভিডে মৃত্যুহার ১.৯২ শতাংশ।কেন্দ্রীয় রিপোর্টে বলা হয়েছে, অসমে অ্যাক্টিভ করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ২২,৭৩৬। এ পর্যন্ত মারা গিয়েছেন ১৯৭ জন। অরুণাচলপ্রদেশে করোনা অ্যাক্টিভ ৮৪৩ জন। এখনও পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ৫ জনের।

এই পরিস্থিতিতে নতুন করে চিন্তা বাড়িয়েছে করোনার সম্পর্কে মালয়েশিয়ার বিজ্ঞানীদের দাবি। তাদের দাবি, এক ভারতীয়র সংস্পর্শে এসে মালয়েশিয়ায় নতুন করে ৪৫ জনের শরীরে করোনার এক নতুন ধরনের স্ট্রেইন সংক্রমিত হয়েছে যা আগের চেয়েও ১০ গুণ বেশি সংক্রামক ও ভয়ঙ্কর। সম্প্রতি সেখানকার এক ভারতীয় রেস্তোরাঁ কর্ণধারের সংস্পর্শে এসে ৪৫ জনের শরীরে করোনা সংক্রমিত হয়েছে। এই ৪৫ জনের মধ্যে ৩ জনের শরীরে নতুন চরিত্রের করোনাভাইরাসের অস্তিত্ব লক্ষ্য করেছেন মালয়েশিয়ার বিজ্ঞানীরা। বিজ্ঞানীদের দাবি, নতুন ধরনের করোনাভাইরাস বর্তমানে যে কটি রয়েছে তার চেয়ে অন্তত ১০ গুণ বেশি সংক্রামক ও ভয়ঙ্কর! সে দেশের বিজ্ঞানীরা নতুন চরিত্রের এই করোনাভাইরাসের নাম দিয়েছেন ডি ৬১৪ জি।

মালয়েশিয়ার বিজ্ঞানীদের এই দাবি চিন্তা বাড়িয়েছে ভারতীয় বিজ্ঞানীদেরও। কারণ, ওই ভারতীয় রেস্তোরাঁ কর্ণধার সম্প্রতি দেশ থেকে ঘুরে মালয়েশিয়ায় যাওয়ার পরই তার থেকে সে দেশের ৪৫ জনের শরীরে সংক্রমিত হয়েছে করোনার এই নতুন স্ট্রেন।

যদি অন্য এক মহল থেকে বলা হচ্ছে, করোনার এই নতুন স্ট্রেইনকে আগের চেয়েও ১০ গুণ বেশি ভয়ঙ্কর ও সংক্রামক ভাবার মতো কোনও বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা বা ভিত্তি নেই। এ নিয়ে আরও পরীক্ষা-নিরীক্ষার প্রয়োজন। তাই এ বিষয়ে এখনই অযথা আতঙ্কিত হওয়ারও কিছু নেই।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
Theme Created By ThemesDealer.Com
0Shares
0Shares