Logo
ব্রেকিং নিউজ :
Wellcome to our website...

টঙ্গীবাড়িতে ৯ জেলেকে ১৫দিন করে কারাদণ্ড

তুষার আহাম্মেদ
আপডেট সময় : Thursday, October 22, 2020

5

টঙ্গীবাড়িতে মা ইলিশ ধরার অপরাধে ৯ জেলেকে ১৫দিন করে কারাদণ্ড ও ১জন ক্রেতাকে ইলিশ মজুদের অপরাধে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

বৃহস্পতিবার (২২ অক্টোবর) ভোরে উপজেলার হাসাইল-বানারী ইউনিয়নের গারুর গাঁও এলাকায় পদ্মা নদীতে মা ইলিশ আহরণের সময় এদেরকে আটক করা হয়।পাশাপাশি হাসাইল এলাকায় অভিযান চালিয়ে একটি বাড়ি থেকে প্রায় ১৫০ কেজি ইলিশসহ ১জনকে আটক করে ভ্রাম্যমাণ আদালত। এসময় জেলেদের থেকে ২টি ট্রলার,২ হাজার মিটার কারেন্ট জাল এবং ৫০ কেজি ইলিশ জব্দ করা হয়।পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্দেশে ইলিশ ধরার কাজে ব্যবহৃত ২টি ট্রলার ডুবিয়ে ও ২ হাজার মিটার কারেন্ট জাল পুড়িয়ে বিনষ্ট করা হয়। জব্দকৃত ২শ’কেজি ইলিশ স্থানীয় প্রায় ১০টি মাদ্রাসা ও এতিমখানায় বিতরণ করা হয়।পরে আসামীদের দিঘীরপাড় পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে অস্থায়ী আদালত বসিয়ে ১জনকে ৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ড ও প্রত্যেক জেলেকে ১৫দিন করে কারাদণ্ড প্রদান করে জেলহাজতে প্রেরণ করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

মুন্সীগঞ্জ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট কার্যালয়ের এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট আশরাফুল কবীর-এর নেতৃত্বে বৃহস্পতিবার ভোর ৪টা থেকে সকাল ১০টা পর্যন্ত টঙ্গীবাড়ি উপজেলার পদ্মানদীর বিভিন্ন পয়েন্টে এ অভিযান চালানো হয়।
ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনায় সার্বিক সহায়তা করেন,জেলা মৎস্য কর্মকর্তা ড.মো.আব্দুল আলীম,
উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা জাকির হোসেন মৃধা’র নেতৃত্বে সঙ্গীয়রা,দিঘীরপাড় পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ আজিজুর রহমানের নেতৃত্বে সঙ্গীয় ফোর্স এবং মাওয়া কোস্ট গার্ডের সিনিয়র অফিসার কমান্ডার মতিউর রহমানের নেতৃত্বে সঙ্গীয়রা সহায়তা করেন।

এবিষয়ে মুন্সীগঞ্জ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট কার্যালয়ের এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট আশরাফুল কবীর জানান,টঙ্গীবাড়ি উপজেলার পদ্মানদীর বিভিন্ন পয়েন্টে অভিযান চালিয়ে ৯ জেলে ও ১জন ক্রেতাকে আটক করা হয়। ৯জেলেকে মা ইলিশ ধরার অপরাধে প্রত্যেককে ১৫ দিন করে কারাদণ্ড ও ১জন ক্রেতাকে মা ইলিশ মজুদ করার দায়ে ৫ হাজার টাকা অর্থ দণ্ড প্রদান করা হয়েছে।


এ জাতীয় আরো খবর
Theme Created By ThemesDealer.Com
0Shares
0Shares