Logo
ব্রেকিং নিউজ :
Wellcome to our website...

প্রধানমন্ত্রীর করোনা সতর্কতার আহবান মানা হচ্ছে নাঃ আনিছ-উজ-জামান

রির্পোটারের নাম 562 বার
আপডেট সময় : Tuesday, May 5, 2020

5

মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান, মহান মুক্তিযুদ্ধকালীন তদানিন্তন মুন্সীগঞ্জ মহকুমা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আনিছ-উজ-জামান আনিছ বলেছেন কোভিড-১৯ এর কারনে দূর্যোগাগ্রস্থের পাশে দাঁড়ানোর এখনই সময়। তিনি সমাজে বিত্তবান-ধনাঢ্য শ্রেণীকে সামর্থ অনুযায়ী গরীব-দুখীর সহায়তায় এগিয়ে আসার আহবান জানান।

তিনি বলেন, দেশে বিদ্যমান লক ডাউনের কারনে শ্রমজীবী জনগোষ্ঠীকে ঘরবন্দি থাকতে হচ্ছে। কর্মহীন মানুষের সংখ্যা প্রতিদিনই বৃদ্ধি পাচ্ছে। সে সঙ্গে বাড়ছে অস্থিরতা তিনি বিশেষভাবে উল্লেখ করেন, শ্রমিক, দিনমজুর, বিভিন্ন শ্রমজীবী জনসাধারণের খাদ্যের নিশ্চয়তা প্রতিবিধান আবশ্যক। অন্যথায় করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধ খুব সহসাই সম্ভবপর হবে না। নিত্য দেশব্যপী বিস্তৃত সংক্রমণ ঠেকানো যথেষ্ট কষ্টসাধ্য হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

আনিছ-উজ-জামান বলেন, সরকারী নির্দেশণা অনুসরনে, অবশ্যই সামাজিক দুরত্ব নিশ্চিত করতে হবে। বিনা প্রয়োজনে ঘর থেকে বের হওয়া যাবে না। জরুরী ক্ষেত্রে বের হলেও বাধ্যবাধকতা ও রীতিনীতি অবলম্বন করতে হয়। বিশেষত ১ মিটার বা ৩ ফুট দুরত্বে অবস্থান বা নীয়। দেশ তথা মুন্সীগঞ্জের মানুষ জীবনে প্রথমবারের মত ‘লক ডাউন’ প্রত্যক্ষ করল। এক্ষেত্রে সুনির্দিষ্ট নিয়ম-কানুন ও সীমাবদ্ধতা সমন্ধে অধিকাংশ জনগোষ্ঠীই অজ্ঞ। কেননা সমাজে এমন মানুষও আছেন যিনি জীবনে কোনদিনই লক ডাউন শব্দটি শোনেননি বা জানেন না। সমাজে বিদ্যমান প্রায় সকলেই লক ডাউনে অনভ্যস্থ। তাই সহসাই বলা যায়, জেলায় প্রত্যাশিত সাফল্য আসেনি।

তিনি অত্যন্ত গুরুত্বারোপ করে বলেন, দেশরতœ, জননেত্রী, প্রধানমন্ত্রীর করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধের ক্ষেত্রে গৃহীত বিভিন্ন উদ্যোগ অত্যন্ত জনহিতৈষী, সু-বিবেচনা প্রসূত। তিনি জোর দাবী করে বলেন, করোনা রোধকল্পে শেখ হাসিনার সচেতনতা ও সতর্কতামূলক উদাত্ত আহবান অবোধ শিশু ব্যতীত আবাল-বৃদ্ধ-বনীতা তথা দেশের প্রতিটি ঘরে ঘরে এবং জনে জনে নিঃসন্দেহে পৌছেছে। বাংলাদেশ উন্নয়নশীল রাষ্ট্র, প্রতিপত্তিশালী নয় তারপরেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আবেগ তাড়িত সুদৃঢ় কন্ঠে বলেছেন, ‘দেশের ১ জন মানুষও না খেয়ে মরবে না’। অথচ বিশে^র মহা পরাক্রমশালী উন্নত সমৃদ্ধ ইউরোপ আমেরিকার নাগরিকরা সরকারের কাছে রীতিমত ভাতা চেয়ে আবেদন করেছেন। সেই সংখ্যাও নেহায়েত কম নয় প্রায় ১ কোটি। শুধু নিউইয়র্ক থেকেই আবেদন পরেছে ৬০ লাখের বেশি।

আনিছ-উজ-জামান অত্যন্ত পরিতাপের সঙ্গে বলেন, প্রধানমন্ত্রীর উপরোক্ত উদাত্ত আহবান সত্তে¡ও তা মানা হচ্ছে না। শেখ হাসিনার নির্দেশনার আলোকে, মুন্সীগঞ্জ জেলা প্রশাসক, পুলিশ প্রশাসন, সেনাবাহিনী ও র‌্যাব মহামারির বিরুদ্ধে অত্যন্ত আন্তরিকতার সঙ্গে প্রানান্তকর প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছেন। একদিকে জেলা ম্যাজিষ্ট্রেটের পক্ষ থেকে দিনভর অবিরাম মোবাইল কোর্ট পরিচালিত হচ্ছে। অন্যদিকে জেলাশহরের গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে চেক-পোষ্ট স্থাপনপূর্বক পুলিশ দিনরাত বিরামহীন শ্রম দিয়ে যাচ্ছেন। কিন্তু শত প্রচেষ্টা সত্তে¡ও জেলায় সংক্রমিত বা আক্রান্তের সংখ্যাও ক্রমান্বয়ে বৃদ্ধি পাচ্ছে। তিনি বলেন, করোনা বৈশি^ক মহামারি তাই প্রশাসন, পুলিশ, সেনাবাহিনী, র‌্যাব যত প্রয়াসেই ধারাবাহিকতা থাকুক না কেন, যতক্ষণ পর্যন্ত এই প্রচেষ্টায় জনসম্পৃক্ততা সম্ভব না হবে, ততক্ষণ পর্যন্ত সাফল্য কষ্টসাধ্য। কেননা প্রশাসনের একার পক্ষে তা সম্ভব নয়। এহেন দূর্যোগকালীন অতীব প্রয়োজন, সমন্বিত উদ্যোগ, সম্মিলিত প্রয়াস। তিনি আরো বলেন, অক্ষম, অসমর্থ, ঘরবন্দি, কর্মহীন মানুষের মানবিক সহায়তা বা খাদ্যের নিশ্চয়তা পেলে তারা স্বভাবতই ঘর থেকে বের হবেন না। এতে অনুন্য হলেও আক্রান্ত রোধে কার্যকরি ভূমিকা রাখবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
Theme Created By ThemesDealer.Com
0Shares
0Shares